মুমিনের কোন দোয়া কোন প্রার্থনাই আল্লাহ তাআলা ফিরিয়ে দেন না

বিসমিল্লাহির রহমানীর রহিম আসসালামু আলাইকুম ওরাহমাতুল্লাহ কে না চায় আল্লাহ মহান এর কাছে তার দোয়া কবুল হোক একজন মুমিন মুসলিম এর জীবনী মহান প্রভুর দরবারে দোয়া প্রার্থনা এবং আকুতি রোনাজারি অতি গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় কতভাবেই কত সময় তো আমরা মহান প্রভুর ডাকে কিন্তু আমরা কি জানি যে ঠিক কখন কখন একজন মুমিনের কোন দোয়া কোন প্রার্থনাই আল্লাহ তাআলা ফিরিয়ে দেন না।

হাদিসে উল্লেখিত পাঁচটি শুনানির সময়

হাদিসে উল্লেখিত পাঁচটি শুনানির সময় যখন মনের দুয়ার প্রত্যেকটি বান্দার জন্য খুলে দেওয়া হয় শুধুমাত্র পেশাদার ব্যভিচারিণী এবং ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি করার লোক ব্যতীত কোনো মুসলিমের দোয়া তখন ব্যর্থ হয় না আল্লাহ হুয়াকবার আল্লাহ তাকে তার নিকট দোয়া করার তাগিদ দিয়েছেন হাদীসে এসেছে যে ব্যক্তি আল্লাহ তাআলার নিকট কোন কিছু চায় না ওই ব্যক্তির প্রতি আল্লাহ তাআলার রাগান্বিত হন দৈনন্দিন জীবনে দোয়া কবুলের পাঁচটি সোনালী সময় রয়েছে যে সময়গুলোতে আসমানের দরজাসমূহ পুরোপুরি উন্মুক্ত করে দেয়া হয়।

মুমিনের কোন দোয়া কোন প্রার্থনাই আল্লাহ তাআলা ফিরিয়ে দেন না

এক জহুরের পূর্বমুহূর্তে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন নিশ্চয়ই আসমানের দোয়াসমূহ খুলে দেওয়া হয় সূর্য মধ্যে আকাশ থেকে পশ্চিম আকাশের দিকে হেলে পড়ার সময় নির্ভর যোহরের সালাত পর্যন্ত তা আর বন্ধ করা হয় না আমি যাই সেই সময়ে আমার কোনো ভালো কাজ উপরে ওঠো সহীহুল জামি  আযানের সময় রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেছেন যখন আযান দেওয়া হয় তখন আসমানের দোয়া সমূহ খুলে দেওয়া হয় এবং দোয়া কবুল করা হয়।

সবার জন্য দোয়া,যাদের দোয়া কবুল হয় না

সহীহ-হাদিস 207 নম্বর হাদিস নামাজের জন্য অপেক্ষা করার সময় রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম. তোমরা এই মর্মে সুসংবাদ গ্রহণ করো যে তোমাদের রব আসমানের দরজাসমূহ খুলে দিয়েছেন এবং তোমাদের নিয়ে ফেরেশতাদের সাথে গর্ভ করে বলেছেন আমার বান্দাগণ আমার নির্দেশিত ফরজ আদায়ের পর পরবর্তী ওয়াক্তের ফরজ নামাজের জন্য অপেক্ষা করছে সুবহানাল্লাহ ইবনে মাজাহ দিয়ে হাদীসটি বর্ণনা হয়েছে আর রাতের শেষ অংশের কথা কি বলব রাতের শেষ সময়ে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেছেন রাত্রিশেষ অর্থ শুরু হলে একজন ঘোষক ঘোষণা দিতে থাকেন।

কোন আবেদনকারীকে আছে তার আবেদন গ্রহণ করা হবে কারো চাওয়া পাওয়ার কিছু আছে কি তার চাওয়া-পাওয়া কবুল করা হবে আছে কোন বিপদ গ্রস্থ ব্যক্তি তাকে বিপদ থেকে মুক্ত করা হবে ওই সময় পেশাদার ব্যভিচারিণী ব্যতীত কোনো মুসলিমের দোয়াই বিফলে যায়না সুবহানাল্লাহ আমরা কোনভাবেই যেন শেষ রাতের দল থেকে বঞ্চিত না হয় আল্লাহ পাক. শেষ রাতের দোয়া থেকে বঞ্চিত না করেন আর এসময় তাজবি পাঠের সময় আল্লাহু আকবার কাবীরা ওয়াল হামদুলিল্লাহি ওয়া সুবহানাল্লাহি ওয়া শীতের সময় আসমানের দরজা খুলে দেয়া হয়।

কোন তিন ব্যক্তির দোয়া কবুল হয় না

একদিন আমরা প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সঙ্গে নামাজ পড়ছিলাম ওই সময়ের মধ্য থেকে একজন বলে উঠল আল্লাহু আকবার কাবীরা ওয়াল হামদুলিল্লাহি কাশীরাম সুভানাল্লাহি বুকরাতাও আসিলা অর্থাৎ আল্লাহ মহান অতি মহান আল্লাহ তা’আলার জন্য অনেক অনেক প্রশংসা এবং সকাল-সন্ধ্যা আমি আল্লাহ তাআলার পবিত্রতা বর্ণনা করছি সুবহানাল্লাহ কত সুন্দর একটি দোয়া রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু সাল্লাম নামাজ শেষ করে বললেন এই কথাগুলো তাসবিঃ গুরু কে বলেছে উপস্থিত লোকদের মধ্যে একজন বলল।

মুমিনের কোন দোয়া কোন প্রার্থনাই আল্লাহ তাআলা ফিরিয়ে দেন না

হে রাসূলুল্লাহ আমি বলেছি প্রিয় নবী বললেন আমি খুব আশ্চর্য্য নিত্য হয়েছি.বাক্যগুলোর জন্য আসমানের দরজাগুলো খুলে দেয়া হয়েছে হযরত ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন রাসূলুল্লাহ সাল্লাহু সাল্লাম এর কাছে এ কথা শোনার পর থেকেই তাসবিরের বাট আমি কখনো পরিহার করি নি সুবহানাল্লাহ আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দোয়া কবুলের জন্য আসমানের দরজা খুলে দেয়ার গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি সোনালী সময়ের হাদিসের নির্দেশিত পন্থায় দুনিয়া ও পরকালের কল্যাণী দোয়া করার তৌফিক দান করুক.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *